publish on: Thursday 28 December 2017

যন্ত্র মানুষের বিকল্প হবে না

ফাইল ছবিঃ
মেশিন লার্নিং কিংবা কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার ফলে দিন দিন চাকরি হারাতে পারে মানুষ, ইদানীং অনেকেই এমনটা বলছেন। কেউ আবার এমন উদাহরণ টেনে এই প্রযুক্তি ভালো ফল বয়ে আনবে না বলেও জানিয়েছেন। তবে সম্প্রতি প্রকাশিত এক গবেষণায় দাবি করা হয়েছে, মেশিন লার্নিং কম্পিউটার সিস্টেম কর্মস্থলে কখনোই মানুষের বিকল্প হতে পারবে না। ওই গবেষণায় এটিও উল্লেখ করা হয়, মেশিন লার্নিং সিস্টেমকে অনেকটা উপযুক্ত করে তোলা যায়, প্রায়ই এটিকে কাজে লাগানোর মাধ্যমে এবং নিয়মিত তথ্য প্রবেশ করিয়ে। তবু মানুষের মতো কাজ করাতে সক্ষম নয় এটি। তাই কর্মক্ষেত্রে মানুষের স্থানে এটি পুনঃস্থাপন করা যাবে না।

যুক্তরাষ্ট্রের কার্নেগি মেলন বিশ্ববিদ্যালয় এবং ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজির একটি দল যৌথভাবে গবেষণাটি করেন। তাঁদের গবেষণায় ২১টি বিষয়কে মানদণ্ড হিসেবে ধরা হয়। গবেষক দলটির একজন বলেন, অর্থনীতিতে মেশিন লার্নিংয়ের প্রভাব এখনো সীমিত। তবে এর প্রভাব গুরুত্বপূর্ণ হলেও খুব শিগগির মানুষ চাকরি হারাবে বলে মাঝেমধ্যে দাবি করা হলেও এর সম্ভাবনা দেখা যাচ্ছে না। 

কেন সম্ভাবনা কম? গবেষকদের দাবি, মেশিন লার্নিং ব্যবস্থা বানানো হয় নির্দিষ্ট কোনো কাজের জন্য স্বয়ংক্রিয় কিংবা অর্ধস্বয়ংক্রিয় পদ্ধতির মাধ্যমে। আর কর্মক্ষেত্রে একজন মানুষকে নানান কিছু করতে হয়। মেশিন লার্নিং ব্যবস্থা সেখানেই কেবল প্রয়োগ করা যাবে, যেখানে শুধু একটি কাজই করতে হবে। 

এটি সত্য যে এই বছর মেশিন লার্নিং কম্পিউটার সিস্টেম, কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা কয়েকটি ক্ষেত্রে বেশ উন্নতি লাভ করেছে। যেমনটা বলা যেতে পারে চেহারা শনাক্তকরণ, ভাষা বুঝতে পারা এবং কম্পিউটার ভিশনের কথা। ইতিমধ্যে এই ব্যবস্থা ক্রেডিট কার্ড প্রতারণা রোধ, অনুমোদন ব্যবস্থা এবং অর্থনৈতিক বাজার বিশ্লেষণে ব্যাপকভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে। এর প্রতিটিই সুনির্দিষ্ট কোনো কাজে, একাধিক কাজে নয়।